তাজমহল

ভারত

সুন্দরতম স্থাপত্য সৌন্দর্য আগ্রার তাজমহল পৃথিবীর অষ্টম আশ্চর্যের একটি। পশ্চিমের ঐতিহাসিকেরা মন্তব্য করেছেন যে, পৃথিবীর আর কোন নির্মানশৈলী এই সাদা মার্বলের নির্মানশৈলীকে ছাড়িয়ে যেতে পারবে না। মুঘল সম্রাট শাহজাহান নির্মিত সম্পূর্ণ সাদা মার্বলের এই অনন্য স্মৃতিসৌধ সম্রাটের প্রিয়তমা স্ত্রী সম্রাজ্ঞী মমতাজ মহলের প্রতি ভালবাসার প্রতীক হয়ে জ্বলজ্বল করছে। এই মনোহর স্থাপত্য সৌন্দর্য হলো এক জৌলুসপূর্ণ সমাধিগৃহ যা সম্রাজ্ঞী মমতাজ মহলের সমাধি ধারণ করে আছে। অনেকেই তাজমহলকে ‘‘মার্বলের শোকগাথা’’ হিসাবে উল্লেখ করেছেন আবার কেউ বলেন ‘‘স্বপ্নের বহিঃপ্রকাশ’’। সম্রাট শাহজাহানের সমাধি পরবর্তীতে এখানে যোগ হয়।

উল্লেখিত যে, মুঘলদের রীতি অনুযায়ী রাজকীয় পরিবারের স্ত্রীলোকদের বিবাহের সময় অথবা অন্য কোন বিশেষ উপলক্ষে নতুন নামে অভিহিত করা হতো এবং জনসাধারণ্যে নতুন নামই পরিচিতি লাভ করতো এইভাবে আরজুমান্দ বানু মমতাজ মহল নামে অভিহিত হন আবার একইভাবে শাহাব উদ্দিন ১৬২৮ খৃস্টাব্দে সিংহাসনে আরোহনের পর সম্রাট শাহ জাহান হিসেবে পরিচিত হন। তিনি সম্রাট হওয়ার পূর্বে শাহজাদা খুররম নামেও অভিহিত ছিলেন।

অসাধারণ এই তাজমহলের নির্মান কাজ শেষ হতে প্রায় বাইশ বছর সময় লেগেছিল এবং বিশ হাজার কর্মী এই নির্মাণ কাজে নিয়োজিত ছিল। এই মহান স্থাপত্য নির্মাণে খরচ হয়েছিল প্রায় ৩২ মিলিয়ন রুপী এবং এর নির্মাণ কাজ শেষ হয় ১৬৪৮ সালে। দিল্লী, কান্দাহার, লাহোর এবং মুলতানের সুদক্ষ রাজমিস্ত্রীগণকে তাজের নির্মাণ কাজে নিয়োজিত করা হয়। অধিকন্ত্ত বাগদাদ, শিরাজ এবং বোখারার অনেক দক্ষ মুসলিম নির্মাতা তাজের বিশেষ কাজগুলি করেন। নির্মাণকাজের দলিলে উল্লেখ আছে যে, তাজের প্রধান স্থপতি ছিলেন সেই সময়ের প্রখ্যাত মুসলিম স্থপতি ওস্তাদ ঈসা। একটি বর্গাকার(১৮৬ x ১৮৬) ক্ষেত্রের প্লাটফর্মের মোড়ানো চৌকোনার উপর অসমান অষ্টভুজাকৃতির আকার ধারন করেছে তাজ মহল। ভবনের নকশা কারুকাজখচিত পরস্পরসংবদ্ধ শাখা-প্রশাখার ধারনায় তৈরী যাতে একটি প্রশাখা নিজ শাখার উপর দাড়িয়ে আছে এবং প্রধান কাঠামোর সাথে সুচারুভাবে সংহত হয়েছে।

এই চমতকার সমাধিসৌধ কয়েকটি ভাগে বিভক্ত হয়েছে- প্রধান প্রবেশ পথ, একটি প্রশস্ত বাগান, একটি মসজিদ (বামে), একটি অতিথিনিবাস (ডানে) এবং কয়েকটি রাজকীয় ভবন। প্রধান কাঠামোর উপর চারটি পুল আবার চারটি ভাগে বিভক্ত হয়ে তাজের চমতকার নকশাকে আরও শৈলিতা দান করেছে এবং সাইটের শেষ প্রান্তে অবস্থিত তাজকে অপরূপ সৌন্দর্য দান করেছে। ট্যুরিস্টদের চোখে ভারতের শ্রেষ্ঠ যেসব আকর্ষণ রয়েছে তার মধ্যে তাজ মহল প্রধানতম দৃষ্টি আকর্ষণীয় বর্তমান এবং চিরকালের জন্য। সাবেক একজন মার্কিন রাষ্ট্রপতি তাজমহল দেখে মন্তব্য করেছেন, ‘পৃথিবীতে দুই ধরণের মানুষ আছে- যারা তাজ দেখেছে আর যারা দেখেনি’।

Read more:
থিরুভানানথাপুরাম ট্রাভেল গাইড

ভারতের তামিলনাড়ু রাজ্যে অবস্থিত থিরুভানানথাপুরাম ভ্রমণের জন্য একটা মনোহর জায়গা। এটা দেশের পরিস্কার-পরিচ্ছন্ন ও সুপরিকল্পিত শহরগুলির মধ্যে একটি। কেরালার সবটুকু Read more

মুম্বাই ট্রাভেল গাইড

মুম্বাই এর বন্দর ভারতের মধ্যে সবচেয়ে ব্যস্ততম। মুম্বাই নামের উতপত্তি হয়েছে স্থানীয় দেবী মুম্বা দেবীর নামানুসারে, এর পূর্ব নাম ছিল Read more

বেঙ্গালোর ট্রাভেল গাইড

কেমপে গৌড়া কর্ণাটক রাজ্যের রাজধানী বেঙ্গালোর প্রতিষ্ঠা করেন। এটা একটি প্রধান মহানগরী এবং দেশের শিল্প ও ব্যাবসা-বানিজ্যের কেন্দ্র। ষোড়শ শতকে Read more

দিল্লী ট্রাভেল গাইড

ভারতের রাজধানী দিল্লী ভারতে ভ্রমণীয় স্থানসমূহের মধ্যে অন্যতম প্রধান স্থান। ‘দিল্লী’ শব্দটি ধিল্লিকা শব্দ থেকে এসেছে যার অর্থ মধ্যযুগের প্রথম Read more

আমার ভারতকে জানুন!

আওরঙ্গাবাদ ট্রাভেল গাইড মুর্তজা নিজাম শাহ দ্বিতীয় এর মূখ্যমন্ত্রী মালিক আম্বার ১৬১০ সালে খড়কি নামক এক গ্রামে আওরঙ্গাবাদ শহর প্রতিষ্ঠা Read more

মহাবালিপুরাম ট্রাভেল গাইড

মহাবালিপুরাম তামিলনাড়ু রাজ্যে অবস্থিত এবং পূর্বের মাদ্রাজ বর্তমানের চেন্নাই থেকে ৬০ কি.মি. দুরত্বে এর অবস্থান। বঙ্গোপসাগরের তীরে অবস্থিত এই জায়গায় Read more

taTamil